এরশাদের আসনে ভোটগ্রহণের চুড়ান্ত দিনক্ষন ঘোষণা

রাজনীতি

জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া রংপুর-৩ (সদর) আসনে উপনির্বাচনের ভোটগ্রহণ আগামীকাল শনিবার অনুষ্ঠিত হবে। ভোটগ্রহণ উপলক্ষে ইতোমধ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন। শুক্রবার সকাল থেকে কেন্দ্রে কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে ইভিএমসহ নির্বাচনী অন্যান্য সরঞ্জামাদি। নেয়া হয়েছে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

উপনির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও রংপুর আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা জি এম সাহাতাব উদ্দিন জানান, ভোটগ্রহণের জন্য সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। এ আসনের ১৭৫টি কেন্দ্রে ১৭৫ জন প্রিসাইডিং অফিসার, ১ হাজার ২৩ জন সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার, ২ হাজার ৪৬ জন পোলিং অফিসার ভোটগ্রহণের কাজে নিয়োজিত থাকবেন। ইভিএম পদ্ধতিতে ১৭৫টি কেন্দ্রের ১ হাজার ২৩টি গোপনকক্ষে ভোটগ্রহণ করা হবে। এসব কেন্দ্রের মধ্যে ৭৩টি কেন্দ্রকে গুরুত্বপূর্ণ এবং বাকি ১০২টি কেন্দ্রকে সাধারণ কেন্দ্র হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

এদিকে ভোটগ্রহণের আগের দিন থেকে ভোটের পরের দিন পর্যন্ত নির্বাচনী এলাকাতে ১৮ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন থাকবে বলে জানা গেছে। এছাড়াও র‌্যাবের ২০টি ইউনিট, পুলিশ ও আনসারের ৩ হাজার সদস্য দায়িত্ব পালন করবেন। নিরাপত্তা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ ও ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনায় থাকবেন ১৮ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও চারজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট।

রংপুর সিটি কর্পোরেশনের ৯ থেকে ৩৩ নং ওয়ার্ড এবং সদর উপজেলার ৫টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত রংপুর-৩ আসন। এখানে মোট ভোটার ৪ লাখ ৪১ হাজার ২২৪ জন। এরমধ্যে পুরুষ ২ লাখ ২০ হাজার ৮২৩ এবং নারী ভোটার ২ লাখ ২০ হাজার ৪০১ জন।

এই নির্বাচনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী রাহগির আলমাহি সাদ এরশাদ (লাঙল), বিএনপি মনোনীত প্রার্থী রিটা রহমান (ধানের শীষ), স্বতন্ত্র প্রার্থী এরশাদের ভাতিজা হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ (মটরগাড়ি), এনপিপির শফিউল আলম (আম), গণফ্রন্টের কাজী মো. শহীদুল্লাহ বায়েজিদ (মাছ) এবং খেলাফত মজলিসের তৌহিদুর রহমান মন্ডল (দেয়াল ঘড়ি) প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।